হবিগঞ্জে গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ; অসংলগ্ন তথ্যে বিব্রত প্রশাসন

0
19

সর্বশেষ আপডেট 2 years আগে | নিউজ ভিশন ২৪

মোঃ ফাহাদ আহমদ, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউপি’র পরিত্যক্ত একটি ভবনে গৃহবধূ গণধর্ষণের খবর পাওয়া গিয়েছে।

সোমবার (৫ অক্টোবর) বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় কিছু মাতব্বর ও জনপ্রতিনিধিরা মিমাংসা ও রফাদফা করার চেষ্টা করলেও ঘটনাটি মূহুর্তেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকসহ সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি করে দেয়৷

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দেবপাড়া ইউপির কালাভরপুর গ্রামের জনৈক এক গৃহবধূ দীর্ঘদিন থেকে সঈদপুর বাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন। কয়েকদিন আগে ঐ গৃহবধূ রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিয়ে গৃহবধূ বলেন, গত রবিবার (৪ অক্টোবর) বিকাল ৫টায় শেরপুর বাজার থেকে একটি সিএনজি (অটোরিকশা) দিয়ে আত্নীয়ের বাড়িতে যাওয়ার পথে অজ্ঞাতনামা চালকসহ ৩জন যুবক হাত পা বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে যায়। গভীর রাতে আউশকান্দি ইউপির একটি পরিত্যক্ত ভবনে নিয়ে তাকে আরও প্রায় ৭ জন দলবদ্ধ হয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে৷ সকাল হলে তাকে একটি সিএনজি দিয়ে আত্মীয়ের বাড়ীতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এরইমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গণধর্ষণের খবর ছড়িয়ে পরলে নবীগঞ্জ-বাহুবলের সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরী ও নবীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের দুইটি দল ঘটনাস্থলে এসে ঐ গৃহবধুকে উদ্ধার করে।পরে পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষিত গৃহবধূ একেকবার একেক ধরণের চাঞ্চল্যকর তথ্য দিতে থাকেন৷ সে তার বক্তব্যে কখনো ৩ জন, কখনো ১৪ থেকে ২১ জনের দ্বারা ধর্ষিত হয়েছে বলে জানায়। এতে করে বিষয়টি রহস্যময় হয়ে ওঠে৷

আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুনের সাথে যোগাযোগ হলে তিনি বলেন, মহিলার অসংলগ্ন বক্তব্যে সবার মধ্যে চাঞ্চল্যকর মনে হচ্ছে। বিষয়টি প্রশাসনের মানুষ খতিয়ে দেখছেন।

নবীগঞ্জ-বাহুবলের সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরীর বিষয়টি নিয়ে বলেন, ঐ গৃহবধূর একেকবার একেক বক্তব্য দিয়ে আসছে। তাই আসল রহস্য উদঘাটনে কিছুটা সময়ের প্রয়োজন হচ্ছে৷ বিষয়টি গভীরভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ভিকটিম মহিলা ও তার স্বামীকে থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আশাকরি রাতের মধ্যে আসল রহস্য উদঘাটন হবে।

মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন